করোনার প্রভাবে হাইমচরে প্রায় ৩০ হাজার পরিবার কর্মহীন হয়ে পড়েছে

করোনার প্রভাবে হাইমচরে প্রায় ৩০ হাজার পরিবার কর্মহীন হয়ে পড়েছে

মোঃ শাহআলম মিজী।

মহামারী করোনার প্রভাবে হাইমচরের ৬ ইউনিয়নের ৫৪ ওয়ার্ড এলাকার প্রায় ত্রিশ হাজার পরিবার কর্মহীন হয়ে পড়েছে। হাইমচর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এর উদ্যোগ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি’র পক্ষ হতে ত্রান বিতরন কার্যক্রম হাতে চলমান রয়েছে।
ঘরে থাকা কর্মসুচী চলমান আজ পর্যন্ত সর্বোচ্ছ ৩ হাজার পরিবারে খাদ্য সামগ্রী দেয়ার পক্রিয়া চলছে।

দিন মজুর, ছোট চা দোকানী, রিক্সা, ভ্যান, অটো, সিএনজি চালক, ছোট, মাঝারী ও বড় ব্যাবসায়ী হতে সকল শ্রেনী পেশার মানুষ ঘর বন্দী অবস্থায় কর্ম হীন হয়ে পড়েছে, এমনকি অনেক প্রবাসী পরিবার প্রবাসে রোজগার / আয় করা ব্যাক্তি গমবন্দী সেই সকল ব্যাক্তিদের দেশে থাকা পরিবার পরিজন অধিকাংশই অসহায় অবস্থায় আছে।
উপজেলা সদর আলগী বাজার সাইকেল মেকার কর্নজিত জানান এক সপ্তাহ কোন আয় নেই, বিদ্যুৎ ছুটা কাজ করা কোশিক কোন কাজ নেই বেকার ঘরবন্দী, জ্বালাই কারক পরিমল কাজ স্ত্রী সন্তন নিয়ে অসহায় অবস্থায় আছি, একই অবস্থা মহজমপুরে দিন মজুর নিখিল মাঝি, মৃত লনী গোপালের বিধবা স্ত্রী সাধনা, উত্তর আলগী ভ্যান চালক সিরাজ, রিক্সা চালক রুশু মিয়া, মহজমপুরের রিক্সা চালক মোক্তারসহ অসংখ্য রিক্স শ্রমিক বলেন মানুষতো ঘর হতে বের হয়ন আমরা রিক্সা নিয়া কই যামু, মহজপুরের গাছকাটা শ্রমিক মজিল ভুইয়া, আলগী বাজার ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ী আহসান উল্লাহ, কার্তিক স্বর্নকার, চা দোকানদার আলমগীর, মটর সাইকেল মেকার রাসেল,অটো চালক সুরুজ, অটো চালক সুজন সুতার, মহজমপুর দিন মজুর আলী কোতয়াল, মহজমপুর কলোনীর সিরাজ, মিজান সহ অসংখ্য দিন মজুর জানায় এক সপ্তাহ কর্মহীন স্ত্রী সন্তান নিয়ে সংকটে আছি।

আলগী উত্তর ইউনিয়নের মেম্বার ফারুক গাজী জানান আমার ওয়ার্ডে প্রায় ১হাজার ৪ শত পরিবার আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত কোন পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিতে পারি নাই,
আলগী দক্ষিন ইউনিয়নের শিক্ষক নেতা সালাউদ্দিন মাষ্টার জানান তার এলাকায় কয়েকশত পরিবার ঘরবন্ধী অবস্থায় আছে উপজেলা চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী ও সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহাবান রইল,
মানুষজনের কর্ম না থাকায় অসহায় জীবন যাপন করছে, হাজার হাজার পরিবার, অনেকে লোক লজ্জায় কারো কাছে হাত পাতায় ইতস্ত করছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌসী বেগম বলেন এই দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য আমরা খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্চি, করোনায় কর্মহীনদের তালিকা প্রনয়নে ইউপি চেয়ারম্যানদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে হতাশ হওয়ার কিছু নাই সরকার এর নির্দেশনা মোতাবেক প্রত্যেক পরিবারের জন্য খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে।

উপজেলা চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী বলেন করোনার এই মহা দুর্যোগে অসহায় ও পরিস্থিতির শিকার মানুষের পাশে দাড়াতে হবে, আমি উদ্যোগ নিয়েছি, আপনারা যারা বিত্তবান আছেন এই কর্মে আমার সাথে শরীক হয়ে অঘবা ব্যাক্তি পর্যায়ে মানব সেবায় নিয়োজিত হওয়ার আহবান রইল। ইনশাহআল্লাহ সরকার ও ব্যাক্তিগত পক্ষ হতে পর্যায়ক্রমে প্রত্যেক পরিবারে খাদ্য সহায়তা পৌছানোর জন্য আমরা চেষ্টা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD