লাউর ফতেহপুরের দরিদ্র জয়নালের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছে – জাতীয় মানবাধিকার সমিতি

লাউর ফতেহপুরের দরিদ্র জয়নালের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছে – জাতীয় মানবাধিকার সমিতি

মোঃ জসিম উদ্দিন মিলন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের লাউর গ্রামে সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত দরিদ্র শ্রমজীবী জয়নাল মিয়ার খুনিদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতি।ঘটনার এক সপ্তাহ পর ও চিহ্নিত খুনিদের গ্রেফতার না হওয়ায় প্রচন্ড ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেন।এবং হত্যাকারীদের আশ্রয় প্রশয় দেয়া মদদ দাতাদের ও দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান সংগঠনটি।১ জুলাই,২০২০ বুধবার বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা,মহাসচিব এডভোকেট সাইফুল ইসলাম সেকুল এবং সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন আল-আমীন এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন,গত ২৩ শে জুন ২০২০ লাউর গ্রামে প্রকাশ্যে সন্ত্রাসী আলী আকবর ও তার সহযোগীরা দরিদ্র শ্রমজীবী জয়নালকে ঘর থেকে ডেকে এনে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জয়নাল গত রবিবার রাতে মারা যায়।বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও ৩০ শে জুন মঙলবার বিকালে জয়নাল হত্যার প্রতিবাদে খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করে।নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে আরো বলেন,সন্ত্রাসীরা যেইদিন জয়নালকে কুপিয়ে ছিল,সেদিন তার বিধবা মা আনোয়ারা বেগম ও চাচাতো ভাই বাঁচাতে গেলে সন্ত্রাসীরা তাদের উপর ও আক্রমণ করে।জয়নালের এই নৃশংস হত্যার ফলে তার সদ্য বিধবা স্ত্রী রোকসানা,দশ বছরের ছেলে জয় এবং চার শিশু সন্তান মুস্তাকিমের ভবিষ্যৎ অন্ধকারে নেমে এসেছে।জয়নাল একজন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ ছিল।প্রতিদিনের কষ্টে উপার্জিত টাকায় সংসার চালাত। করোনাকালীন মহাদূর্যোগে শান্তিপ্রিয় গ্রাম হিসেবে চিহ্নিত লাউরে কেন,কী কারণে এবং কোন উদ্দেশ্যে আলী আকবর গং দের দিয়ে হত্যার রাজনীতি শুরু করল,সেটি খুঁজে বের করার দাবি জানান মানবাধিকার সংগঠনটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD