চাঁদপুরের অর্ধশতাধিক গ্রামে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হযেছে আজ

চাঁদপুরের অর্ধশতাধিক গ্রামে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হযেছে আজ

আমান উল্যা আমান চাঁদপুরঃ-

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে চাঁদপুর জেলার পাঁচ উপজেলার ৪০ গ্রামের প্রায় অর্ধলক্ষাধিক মানুষ আজ শুক্রবার (৩১ জুলাই) পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হচ্ছে। ঈদুল আযহার প্রথম জামাত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সাদ্রা দারুযযফর সিরাজুম মনির হাফিজিয়া মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও চাঁদপুরের অর্ধশতধিক গ্রামে পবিত্র ঈদের জামাত সকাল আটটা থেকে নটার মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বিগত ৯২ বছর ধরে এসব গ্রামের বেশীরভাগ মুসলিম রা সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ধর্মীয় অনুষ্ঠানগুলো পালন করে আসছেন। তবে অন্যান্য করোনা ভাইরাসের কারণে এবার ঈদগাহে নামাজ না পড়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে মসজিদে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে।
জানা যায়, ইসলামের চার মাজহাবের মধ্যে হানাফি মাজহাবের অনুসারীরা সৌদি আরবের সঙ্গে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান উদযাপন করে আসছে। হাজীগঞ্জ উপজেলার বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নের সাদ্রা হামিদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মরহুম মাওলানা আবু ইছহাক ইংরেজি ১৯২৯ সাল থেকে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ইসলামের সব ধর্মীয় রীতিনীতি প্রচলন শুরু করেন তিনি।
মাওলানা ইছহাকের মৃত্যুর পর থেকে তার ৬ ছেলে এ মতবাদের প্রচার চালিয়ে আসছেন। এদের মধ্যে তার বড় ছেলে আবু যোফার মোহাম্মদ আবদুল হাই সাদ্রাভী অন্যতম। তার মৃত্যুরপর তার নাতি আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি আরিফ চৌধুরী এ মতবাদের প্রচার করে আসছে।
চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ, ফরিদগঞ্জ, মতলব দক্ষিণ ও কচুয়া উপজেলার ৪০টি গ্রামে প্রায় ৯২ বছর ধরে এভাবে রোজা, ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা উদযাপিত হয়ে আসছে।
আগাম ঈদ পালন নিয়ে মতভেদ রয়েছে। অতীতে একাধিকবার সংঘাত ও সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। দীর্ঘদীন ধরে বিষয়টি নিয়ে তর্ক-বিতর্ক চললেও আজও পর্যন্ত এর স্থায়ী সমাধান হয়নি। ফলে একই গ্রামের এমনকি একই পরিবারের সদ্যসদের কেউ একদিন আগে আবার কেউ একদিন পরে ঈদ উদযাপন করছেন।
যেসব গ্রামে আজ ঈদ উদযাপন হচ্ছে সেগুলো হলো- হাজীগঞ্জ উপজেলার সাদ্রা, সমেশপুর, অলিপুর, বলাখাল, মনিহার, বেলচা, জাঁকনি, প্রতাপপুর, গোবিন্দপুর, দক্ষিণ বলাখাল। ফরিদগঞ্জ উপজেলার-, বাসারা উভারামপুর, উটতলী, মুন্সিরহাট, মূলপাড়া, বদরপুর, পাইকপাড়া, সুরঙ্গচাইল, বালিথুবা, কাইতাড়া, নুরপুর, শাচনমেঘ, শোল্লা, হাঁসা, চরদুখিয়া। মতলব দক্ষিণ উপজেলার দশআনী, মোহনপুর, পাঁচআনী ও কচুয়া উপজেলার উজানি গ্রাম।
এ বিষয়ে আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি আরিফ চৌধরী বলেন, সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের সময়ের ব্যবধান মাত্র ৬ ঘণ্টা। ৬ ঘণ্টা ব্যবধানের জন্য রোজা ও ঈদ পালনে বাংলাদেশে এক- দুইদিন ব্যবধান হতে পারে না।
বার্তা প্রেরক
আমান উল্যা আমান
চাঁদপুর প্রতিনিধি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD