টনক নড়েনি শহিদ সরর্দারের নেতৃত্বে চলছে মা ইলিশ বিক্রি ও পাচার

টনক নড়েনি শহিদ সরর্দারের নেতৃত্বে চলছে মা ইলিশ বিক্রি ও পাচার

এস আর শাহ আলম

কে এই শহিদ সরদার সংবাদ প্রকাশের পড়েও নটক নড়েনি, বহাল তবিয়তে চলছে তার নেতৃত্বে মা ইলিম নিধন সহ বিক্রির ধুম, যাহা এখনো চোঁখে পড়ার মত, যার কারনে এলাকা বাসি বলেন শহিদের খুটির জোর কোথায়, ক্ষমতা শীল দলের নাম ভাঙিয়ে তার প্রভাবে কি শহিদের এই রাজ্বত্ব নাকি সকল কে মিল মিশ করে তার এই সাহসিকতা, যেখানে মা ইলিশ রক্ষায় পুলিশ জেলেদের আটক করছে, আর আইন তাদের সাজা দিচ্ছে, সেখানে দালালদের উপর আইনি শাসন কেনো হচ্ছে না এমন টাই প্রশ্ন সাধারণ মানুষের,

দিবা রাএি শহিদের মা ইলিশ বিক্রির ধুম আর জেলেদের টাকা দিয়ে ইলিশ নিধন এমন নজির বিহিন ঘটনা মেনে নেবার মত নয়, আমাদের মত সাংবাদিকরা তাদের কেনা বেচার ছবি তুলতে গেলে বহু হুমকি ধমকি শুনতে হয়, আর পুলিশ ওই সব দালালদের বিরুদ্বে কোন এ্যকশান নিতে দেখা যায় না, সব এ্যকশন জেলেদের উপর, আইন যদি সবার জন্য সমান হয়ে থাকে তাহলে দালাল চক্র হচ্ছে বড় অপরাধি, যেমন শহিদ যেমন দালাল তেমনি একজন প্রভাব শালী, তাহার টাকার লালশা যেনো আজ কোটি পতি গড়ে তুলবে,।

উল্লেখ্য চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৩ নং হানারচর ইউনিয়নের আখনঘাটের ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদ সরর্দারের নেতৃত্বে নদীতে শতাধিক জেলে নৌকা করে মা ইলিশ নিধন করছে ও তার আড়ৎদে সেই মাছ বিক্রি করছে।

ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শহিদ সরর্দার এই ২২ দিনের অভিযানে সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মা ইলিশ বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়নের প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে ভোর পর্যন্ত আখনঘাটে নদীর পাড়ে খুচরা ও পাইকারী ইলিশ মাছ বিক্রি করা হচ্ছে।আর এই মাছ বিক্রির কমিশন আওয়ামী লীগ নেতা শহীদ সরদার নিজেই নিচ্ছে। শুধু তাই নয় নন্দির ঘাটও তার ছএ ছায়ায় লাখ লাখ টাকার মা ইলিশ কেনা বেচা হচ্ছে রাতের আধারে,

এছারা শহীদ পুলিশের সুনাম নষ্ট করতে পাগলের প্রোলাপে বলেছে ফরিদগঞ্জ থানার একজন পুলিশ কর্মকর্তা কে দুই হালি মাছ ৩৬০০ টাকা দিয়ে কিনে দিয়েছে। সেই মাছ রিক্সা সিটের নিচে ঢুকিয়ে আইলার রাস্তা পর্যন্ত এগিয়ে দিয়েছি। মানুষ মাছের জন্য আমাদের কাছে এসে ফোন দেয় তাই একটু সহযোগিতা তাদের করতে হয়। নদীতে জেলেদের লক্ষ লক্ষ টাকা দাদন দিয়েছি তার পরেও তারা মাছ দিচ্ছেনা, জেলেরা নিজেরাই তা বিক্রি করেন।

স্থানীয়রা জানান, হানারচর ইউনিয়নের বাসিরা বলেন প্রতি বছর অভিযানের আসলে শহিদ সরদার ইলিশ মাছ বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা অবৈধভাবে হাতিয়ে নিচ্ছে। তার বিরুদ্ধে প্রশাসন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করলে নদীতে ইলিশ মাছ নিধন বন্ধ করা সম্ভব হবে সরকারের উদ্দেশ্য সফল হবে । আর তাই এই শহিদদের আইনের আওতায় আনলে মা ইলিশ রক্ষা পাবে বলে মনে করেন সচেতন মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD