চাঁদপুরের চোরা কারবারি সেলিম এখন বরিশালে

চাঁদপুরের চোরা কারবারি সেলিম এখন বরিশালে

এস আর শাহ আলম

আবারো সক্রিয় হয়েছে নদীর চোরা কারবারিরা, তবে চাঁদপুর মেঘনা নদীতে না করে তারা এখন বরিশালের নদীতে চোরা কারবারি করার অভিযোগ আসে।

নাম প্রকাশে অনিহা জানিয়ে কয়েকজন বলেন চাঁদপুরের নদীর চোরা কারবারি সঙ বদ্ব দল এখন বরিশালের নদীতে রাঁতের আঁধারে বিভিন্ন খাদ্দ পণ্য চোরাই পথে আমদানী করে বরিশাল জেলাতে পাচার করছে, অভিযোগে আসে যে চাঁদপুর শহরের যমুনা রোড এলাকার মৃত করিম ভূইয়ার ছেলে মোঃ সেলিম ভূইয়া সহ একটি সঙ বদ্ব চোরা কারবারি মঙ্গল বার রাতে চাঁদপুর থেকে গিয়ে বরিশালের নদীতে জাহাজ থেকে ৪০ টনের মত গম চোরাই পথে ক্রয় করে, যার মূল্য আনুমানিক ২০ লাখ টাকা হবে, গমের পাশা পাশি এরা চিনি, ডাইল, ও চোরাই পথে ক্রয় করে বরিশাল সহ নোয়াখালি, লক্ষীপুর জেলার চোরা কারবারি সিন্ডিকেটদের কাছে বিক্রি করছে, চাঁদপুরের নৌ পুলিশ ও কোষ্ট গার্ড সচেতন বলে জেলার চোরা কারবারিরা হিমশিমে পড়ে যায়, যার কারনে মেঘনা নদীতে তাদের রাঁতের চোরা কারবারি বন্দ হয়ে যায়,

কিন্তু তবুও কি তারা থেমে আছে, চাঁদপুর জেলার বাহিরে গিয়ে এই চোরা কারবারিরা তাদের কারবার চালিয়ে যাচ্ছে, তাদের কারবারির কারনে সরকার মোটা অংকের টাকা রাজশ্ব হারাচ্ছে, আরো জানা যায় এই সব চোরা কারবারিরা জাহাজ থেকে বিদেশ থেকে আশা জুতাও চোরাই পথে আমদানি করে যার মধ্যে মোঃ ইউসুফ আলি ওরফে হাদা, পাইলট ডগ সংলগ্ন যমুনা রোড চাঁদপুর, সে রাতের আধারে লাখ লাখ টাকার চোরাই জুতা আমদানী করে চাঁদপুরের বিভিন্ন মার্কেট গুলিতে বাজার জাত করছে,।

কোন এক সময়ের সেলিম ছিলো নদীর চোরাই তেলের চোরা কারবারি, তৎকালীণ সময়ে রাঁতের আধারে লাখ লাখ টাকার তেল জাহাজ থেকে চোরাই ভাবে ক্রয়য করতে, যার মধ্যে ছিলো ডিজেল, পেট্রোল, অকটেন, অথচ এখন তাদের নাগালের বাহিরে সেই সব ব্যাবসা, ফলে তারা এখন বরিশালের নদীটি নিরাপদ চোরাই ব্যাবসার স্হান হিসেবে বেছে নিয়েছে,

তবে চাঁদপুরের কয়েকজন পুরনো চোরা কারবির সাথে আলাপ করলে তারা জানান, মেঘনায় কোন কাজ হয় না আর আমরা বহু বছর আগে এসব কারবারি করলেও এখন আর করি না, তবে পরশ পর খোজ খবরে জানতে পেরেছি চাঁদপুরের কয়েকজন চোরা কারবারি এখন অনেক সক্রিয় হয়ে নদীতে কাজ করছে, তাও আবার বরিশালের নদীতে, এতে করে চাঁদপুরের ভাব মূর্ত্বি নষ্ট হচ্ছে বলে আমরা মনে করি,

আজ ওই সব চোরা কারবারিরা রাতা রাতি আঙুল ফুলে গলা গাছ বনে গেছেন, পুলিশের তৎপড়তা এদের প্রতি না থাকার কারনে দিনের পর দিন মাসের পড় মাস এরা চোরা কারবারির পাহার গড়ে তুলেছে, আর তাই এ বিষয়ে শংশ্লিষ্ট কর্তৃ পক্ষের হস্হোক্ষেপ কামনা করেছেন সচেতন মহল সহ চাঁদপুর বাসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD