কালের সাক্ষি হয়ে দারিয়ে আছে কেরানীগঞ্জের খালের ব্রিজ

কালের সাক্ষি হয়ে দারিয়ে আছে কেরানীগঞ্জের খালের ব্রিজ

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি:

সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মানুষের ব্যস্ততা। বাড়ছে যানবাহন। প্রতিনিয়ত ধুঁকতে ধুঁকতে সেই চাপ নিয়ে চলেছে ঢাকার কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যাখালে ওপর নির্মিত উত্তরপাড়া সামসু ব্রিজটি।

দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় ব্রিজটির বর্তমানে বেহাল অবস্থা। যে কোনও সময় ঘটতে পারে বড় দুর্ঘটনা। ফলে এই ভগ্নপ্রায় সেতুর উপর প্রতিদিনের এই চাপে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে অনেকের কপালেই। দ্রুততার সঙ্গে এই ব্রিজ সংস্কার না হলে বড়সড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

এই অবস্থায় এলাকার মানুষ, এই পথে চলতি সাধারণ মানুষ থেকে গাড়ি চালক সকলেই চাইছেন দ্রুত সংস্কার করা হোক অতি গুরুত্বপূর্ণ এই ব্রিজটি।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়েই অসংখ্য যাত্রী, নির্মাণধীন ভারি যান ও পণ্যবাহী যানবাহন যেমন যাতায়াত করে, তেমনই শুভাঢ্যা এলাকার একটা বড় অংশের মানুষ এই রাস্তা দিয়েই ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করেন। কিন্তু দীর্ঘদিন শুভাঢ্যাখালের উপর এই ব্রিজটি সংস্কার না হওয়ার ফলে বিভিন্ন অংশে জরাজীর্ণ অবস্থায় রয়েছে। পাশাপাশি ব্রিজটির উপরে রাস্তার দু’পাশের অধিকাংশ খুঁটি যুক্ত রেলিং ভেঙ্গে পড়েছে। ফলে সামান্য অসতর্ক হলেই চালক সহ গাড়ি খালের গর্ভে পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ওই রাস্তা দিয়ে বাইকে নিয়মিত যাতায়াতকারী সম্রাট নামে এক যুবক অতিদ্রুত ব্রিজ সংস্কার প্রয়োজন দাবি জানিয়ে বলেন, ব্রিজের দুপাশে দীর্ঘ রেলিং এর অবস্থাও তথৈবচ। যেকোন সময় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। এছাড়াও এই সেতুর এতোটাই কম চওড়া যে দু’টো গাড়ি পাশ কাটাতে গিয়ে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

স্থানীয় বাসিন্দা আবদুল মতিন বলেন, অনেক বছর থেকেই ব্রিজটির বেহাল দশা। স্কুল ও কলেজ শিক্ষার্থীরা থেকে ব্যবসা বাণিজ্য থেকে নানা কাজে হাজার হাজার মানুষ এই সেতু দিয়ে যাতায়াত করেন। দুর্ঘটনা কথা না ভেবে অনেক সময় মোটরবাইক ও সাইকেল আরোহীরা বাধ্য হয়ে সেতুর উপর দিয়ে যাতায়াত করেন।

শুভাঢ্যা ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার আবুল হোসেন বলেন, এ ব্রিজের তেমন কোন সমস্যা নেই। রেলিঙের হাতলগুলি ভেঙে গেছে। আমাদের এই ব্রিজের জন্য শীঘ্রই পদক্ষেপ নিবে আমাদের উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ।

শুভাঢ্যা ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার সাথী আলী বলেন, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ (বিপু) ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমদ সঙ্গে এ ব্রিজ নিয়ে কথা হয়েছে। এ ব্রিজটি নতুনভাবে নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। তাছাড়া আমাদের সরকার পুরাতন ভেঙে সবকিছুই নতুনভাবে তৈরি করছেন। এ ব্রিজটি ৩০ ফিট হবে। রাস্তাটিও বড় করা পরিকল্পনা রয়েছে। শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নের পক্ষে।

শুভাঢ্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন জানান, এ ব্রিজ মেরামতের জন্য অতিদ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

কেরানীগঞ্জ উপজেলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার অমিত দেবনাথ এ বিষয়ে বলেন, এ ব্রিজটির বিষয় আমি অবগত নয়। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD