নেশা করতে বাধা দেওয়ায় স্ত্রী দুই হাতের কব্জির রগ কেটে দিলেন ঘাতক স্বামী।

নেশা করতে বাধা দেওয়ায় স্ত্রী দুই হাতের কব্জির রগ কেটে দিলেন ঘাতক স্বামী।

তানজিলা ইসলাম

তানজিলা ইসলামঃ টঙ্গীর তিলার গাতি এলাকায় নেশা করতে বাধা দেওয়ায় স্ত্রী মৌসুমি আক্তার(২৮)এর দুই হাতের কব্জির রগ কেটেদিলো পাষণ্ড স্বামী শাহজাহান মিয়া (৩২) এসময় মাথার পিছনে ডান পাশে ও ডান চোখে আঘাত করে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় আসেপাশের লোকজন মৌসুমি আক্তার কে উদ্ধার করে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এলাকা বাসি জানান, তিলার গাতি এলাকার মোস্তফা মিয়ার একমাত্র মেয়ে মৌসুমি আক্তার। দীর্ঘ ৯ বছর আগে একই এলাকার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে শাহজাহান মিয়ার সাথে ধুমধাম করে বিয়ে দেন। বিয়েতে এলাকার গণ্যমান্য সবাই উপস্থিত ছিলেন। বিয়ের ২/৩ বছর বিগত হওয়ার পর শাহজাহান মিয়া সংগদোষে আসক্ত হয়ে পড়েন এবং নেশা করে এসে মৌসুমি আক্তার কে অমানবিক নির্যাতন করেন,। এরি মাঝে ২সন্তানের মা হয়ে জান মৌসুমি। সন্তানদের কথা চিন্তা করে স্বামী শাহজাহান মিয়া কে ভালো করতে – এবং স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে উঠে পড়ে লাগে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১টায় মানুষ যখন জুম্মার নামাজ আদায় করতে মসজিদে যায়, এমন সময় শাহজাহান মিয়া একা ঘরে বসে নেশা করছে।এতে স্ত্রী মৌসুমি আক্তার দেখে ফেলে এবং স্বামী শাহজাহান মিয়া কে নেশা করতে বাধা দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে শাজাহান মৌসুমিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় আঘাত করে এবং দুই হাতের কব্জির রগ কেটে দেয় এবং চোখ দিয়ে দেখে বলে চোখ নষ্ট করতে ডান পাশের চোখে আঘাত করে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় মৌসুমি কে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসলে তাকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে নেওয়ার জন্য বলে।লগডাউন থাকায় তাকে একটি পাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD