মহান বিজয় দিবস ২০২২ পালনে অধ্যক্ষের অনীহাঃ

মহান বিজয় দিবস ২০২২ পালনে অধ্যক্ষের অনীহাঃ

নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁ জেলাধীন নিয়ামতপুর উপজেলার ১৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠীত স্বনামধন্য বালাতৈড় সিদ্দিক হোসেন ডিগ্রি কলেজের বহু সমালোচিত অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেনের বিরুদ্ধে কলেজে পদে পদে নানা অনিয়ম, অনীহা, দূর্নীতি, কলেজের অর্থ আত্মসাৎ এবং নিয়োগ জালিয়াতি, ক্ষমতার অপব্যবহারসহ নানান অভিযোগ করেছেন কলেজ প্রতিষ্ঠাতা পরিবারের সদস্য ও এলাকাবাসী। তাঁরা আফসোস করে বলেন সম্প্রতি পুনরায় অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন (আরবি বিষয়ের শিক্ষক) নতুন করে আরেক টি বড় অনিয়ম করছেন। তা হল, গত ১৬ ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস ২০২২ পালনের কোন নিয়ম- কানুন অধ্যক্ষ মান্য করেন নাই। কলেজ প্রতিষ্ঠাতা পরিবারের সদস্য ও কলেজ এলাকা বাসী বলেন অধ্যক্ষ কলেজে সব সময় নিজের ইচ্ছেমত নানা অনিয়ম করেন। গত ১৬ ই ডিসেম্বর ২০২২ মহান বিজয় দিবসেও অধ্যক্ষ অনিয়ম করেছেন। তাঁরা বলেন,অধ্যক্ষ গোপনে তাড়া হুড়া করে স্বল্প সময়ে দুই একটা কাজ করেই মহান বিজয় দিবস শেষ করে দেন। জানা যায় অধ্যক্ষ বিজয় দিবসের ব্যানার তৈরি করেন নাই। বিজয় দিবসের শোভা যাত্রা করেন নাই ,ছাত্র-ছাত্রীদের কলেজ ডেকে কোনই আয়োজন করেন নাই। মহান বিজয় দিবসে হয়নি কোন খেলা ধুলা ও পুরস্কার বিতরণ, হয়নি কোনই আয়োজন ও আনন্দ।

এই মহান বিজয় দিবসে অধ্যক্ষের এমন অনিয়মের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ ও অধ্যক্ষের শাস্তি দাবি করছেন স্বাধীনতা পক্ষের মানুষেরা।

বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল। স্বাধীনতার আনন্দে মহান বিজয় দিবসে লাল সবুজের সাজে সজ্জিত হয়ে সারা দেশে শোভা যাত্রা বের হয়েছে। সারা দেশে নানান আয়োজনে খেলা ধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পুরস্কার বিতরণ তথা মহা উৎসবে মেতে উঠেছিল দেশের ছাত্র-ছাত্রী ও সারা দেশের মানুষ। বিভিন্ন আলোচনায় সারা দেশের মানুষরা বলেন এই দিন আমাদের জন্য গর্বের,গৌরবের, আনন্দ ও উল্লাসের। এই বিজয়কে ধরে রাখার জন্য আমাদের স্ব স্ব কর্মস্হল থেকে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করতে হবে এবং দেশকে ভালো বাসতে হবে। কিন্তু অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন বিজয় দিবসকে অবজ্ঞা ও অসম্মান করেছেন।

সারা দেশের মানুষ আমরা বীর শহীদ মুক্তি যোদ্ধাদের শ্রদ্বার সাথে স্মরণ করি আজীবন স্মরন করব। একই সাথে যারা বেঁচে আছেন তাঁদেরকে লাল গোলাপ শুভেচ্ছা জানাই।

কিন্তু বিজয়ের ৫১ বছর পরে ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেনের মহান বিজয় দিবস পালনে অনিয়ম ও অনীহা দেখে কলেজ এলাকার আনন্দ প্রিয় মানুষ জন, ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও শিক্ষকরা আফসোস ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন দেশের স্বাধীনতা বিরোধী অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন সম্পূর্ন উদ্দেশ্যমূলক ভাবে আমাদের মহান বিজয় দিবসকে অসম্মান করেছেন। এটা বড় কষ্টের ও আফসোসের বিষয়। তাঁরা বলেন এমন অধ্যক্ষ মুক্তি যুদ্ধের পক্ষের শক্তি হতে পারে না। এটা নিয়ে সবার মনে অনেক ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।
স্বাধীনতা পক্ষের মানুষদের দাবি অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন (আরবি বিষয়) স্বাধীনতা বিরোধী। সে মাদ্রাসা পড়া ও আরবি বিষয়ের শিক্ষক তথা আলেম নামের কলঙ্ক। তাঁরা দাবি করেন অধ্যক্ষ কর্তৃক কলেজের মা ক্ষুন্ন হচ্ছে। অধ্যক্ষের নানা অনিয়ম এবং মহান বিজয় দিবস পালনে বালাতৈড় সিদ্দিক হোসেন ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষের অনিয়ম ও অনীহা কখনও ক্ষমার যোগ্য না। সকলের মনে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

স্বাধীনতা পক্ষের সকল মানুষরা মুক্তি যোদ্ধাদের স্মরন করে দেশ রত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী মহোদয় এর নিকট অধ্যক্ষের এমন অনীহা ও অনিয়মের বিরুদ্ধে দ্রুত সময়ের মধ্যে যথাযথ শাস্তি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD