সুইডেনে চালু হলো বৈদ্যুতিক রাস্তা

পরীক্ষা মূলক প্রচার: প্রযুক্তি দুনিয়ায় চলছে বৈদ্যুতিক যান তৈরির ধুম। গুগল তৈরি করছে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি। অনেক দিন ধরে বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করছে গুগল। এ ছাড়া অটোমোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলাও কাজ করছে বৈদ্যুতিক গাড়ি নিয়ে।

কিন্তু কিছু কিছু যানবাহনের আকার এতই বড় যে সেগুলোকে সম্পূর্ণভাবে বৈদ্যুতিক গাড়িতে পরিণত করা সম্ভব নয়। সে কথা মাথায় রেখেই এবার সুইডেনে চালু করা হয়েছে বৈদ্যুতিক রাস্তা, যেখানে যেকোনো আকারের বাহনকেই বিদ্যুতের মাধ্যমে চালানো যাবে।

ট্রাক ও বাস নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্ক্যানিয়ার সঙ্গে মিলে সুইডেন সরকার তৈরি করেছে দুই কিলোমিটারের বিশেষ সড়ক, যাকে বলা হচ্ছে পৃথিবীর প্রথম বৈদ্যুতিক রাস্তা। এ খবর জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবল।

বৈদ্যুতিক রাস্তার জন্য তৈরি করা হয়েছে আলাদা একটি লেন। এই লেন ধরে টানা হয়েছে বৈদ্যুতিক তার। আর যখন এসব তারের সঙ্গে ট্রাক, বাস বা অন্য কোনো বাহনকে যুক্ত করে দেওয়া হয়, তখন সেটা সম্পূর্ণভাবে বিদ্যুৎ চালিত বাহনে পরিণত হয়।

অবশ্য এ ধরনের উদ্যোগ এটাই প্রথম নয়। যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে ১৯৪০ সাল থেকে এ ধরনের বৈদ্যুতিক ট্রলিবাস চলছে। তবে রাস্তায় আলাদাভাবে বৈদ্যুতিক সংযোগ দিয়ে লেন তৈরি করে বাহন চালানোর আইডিয়াটি নতুন।

সুইডেন এ কাজ করছে, কারণ ২০৩০ সালের মধ্যে তারা তেলেচালিত সব যানবাহন রাস্তা থেকে তুলে নিতে চাইছে। পরিবেশ রক্ষার জন্যই এ উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার।

বৈদ্যুতিক রাস্তার এই পদ্ধতি কাজে লাগাতে পারলে ভবিষ্যতে গণপরিবহনের ক্ষেত্রে পরিবেশদূষণ ছাড়াও অধিক পরিমাণে যাত্রী চলাচলের ব্যবস্থা করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD