হিন্দু ছেলে মুসলিম মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাবেহ চাঁদপুরে স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা,

হিন্দু ছেলে মুসলিম মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব চাঁদপুরে স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা, মারধর করে মোবাইল ভাঙচুর

চাঁদপুর প্রতিনিধি

চাঁদপুর প্রফেসর পাড়ায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে তুলে নেওয়ার সময় ডাক চিৎকার দিলে তাকে আহত করে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রফেসর পাড়া ডাক্তার সীমা হাসানের বাসার সামনে এই ঘটনাটি ঘটে।
বখাটে অনিমেক দাস স্কুল ছাত্রীর ব্যাগ থেকে মোবাইল কেড়ে নিয়ে ভেঙ্গে ফেলে ও সাথে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেয়। স্কুল ছাত্রীর ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয়রা দৌড়ে আসলে অবশেষে অপহরণকারী বখাটে যুবক অনিমিক দাস(২১) ও সহযোগী ঘোষপাড়ার তারেক ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
ঘটনার পরে স্কুল ছাত্রীর মা নুরুন্নাহারকে ফোন করে বকাটে অনিমিক দাস পুনরায় হুমকি-ধমকি ও জানে মেরে ফেলার হুংকার দেয়।
এই বিষয়ে স্কুল ছাত্রীর মা নুরুন্নাহার জানান, মেয়ে লেডি প্রতিমা স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী স্কুলে আসা যাওয়ার পথে শহরের কুমিল্লা রোড শ্রাবণী ভিলা নিউ লাইফ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ভবনের চতুর্থ তলায় ভাড়াটিয়া অসিত কুমার দাসের ছেলে অনিমিক দাস বখাটে যুবকদের সাথে নিয়ে মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতো। সে হিন্দু ধর্মের ছেলে হয়ে মুসলিম ধর্মের মেয়ের সাথে প্রেম নিবেদন ও বিয়ের প্রস্তাব দেয়।
তার কথা না শুনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে মেয়ে প্রাইভেট পড়ার জন্য যাওয়ার পথে রাস্তায় একা পেয়ে তাকে অপহরণ করে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে ও তার মোবাইল ফোনটি ভেঙ্গে ফেলে। এরপর বখাটে অনিমিক তার মোবাইল ফোন থেকে ফোন করে আমাদের গুলি করে হত্যা করবে ও আমার মেয়েকে এসিড মেরে মুখ ঝলসে দিবে বলে হুমকি দেয়। আমরা পুরো পরিবার নিয়ে এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এই বখাটে অনিমিকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD