তকালের আমি আজই অর্থ হীন 

তকালের আমি আজই অর্থ হীন

আগামীকাল আর কি হবে?

কক্সবাজার প্রতিনিধি

দোলনায় দোল খেয়ে আপেল খেতে পারছি না।
আগে পারতাম সেটা আবার গ্রীন আপেল।পেতাম বনেদী শহরে থাকার কারনে।এখন পাওয়া যায় না, দাম বেড়েছে অনেক।আর যে শহরে আছি আগের চেয়ে মফস্বল।বলা যেতে পারে গাঁও গেরাম।

এখানে দোলনা দড়ি দিয়ে বাঁধা ।দোলে কম।ছিঁড়ে যেতে পারে।আবার বসার জায়গা কম।দোলনার উচ্চতা কম ।পা ঠেকে যায়। দোল খেতে গেলে শব্দ হয়।অন্য রা দেখে হিংসা করে।পাছে লোকে কিছু বলে।তাই অত ভুমিকা দেখানো চলছে না।

আবার সকালের পদযাত্রায় চরন অনেক ভারী।
কারন আগের মত পাদুকা নেই।যাত্রা ‘র সহ যাত্রী কম।সকালে ওঠা হয় না।কারন রাতে দেরীতে ঘুম।উঠতে সকালের শেষ দুপুরের প্রহর ।আবার যেখানে কদম ফেলব সে জায়গায় ধুলা বালি ।উড়ে আমার চোখে যায় না শুধু অন্যের চোখেও যায়। তাই এখন আমার বড় দুঃসময় ,বুঝার নেই কেউ !

আগের মত যাত্রী নিয়ে রিক্সা চালাতে পারি না।কারন সূর্যের তাপ বেশী।প্রখর,প্রচন্ড,তাপে দহন হয় । অতীতে এত খারাপ সময় আসেনি।প্যাডেল করতে পারি না ।কারন পায়ে শক্তি নেই। শরীরেও নেই।কারন রাত জেগে পড়তাম। মাথায় বুদ্ধি বাড়াতে।

শারীরিক পরিশ্রম যেন না করতে হয়। রাস্তাও ভাংগা। রিক্সা চালানে কষ্ট। ভাল রাস্তায় রিক্সা দেয়নি ।দিয়েছিল মোটরসাইকেল। তারও আগে হিনো কোচ চালিয়েছি।তখন ও কষ্ট হত।কারন শুরু তে বিমান চালিয়ে খ্যাতি অর্জন করেছি।দেশে বিদেশে পুরস্কার ও পেয়েছি। কিন্তু যার বিমান সেই এখন নাখোশ।

এখন এতই অপাংক্তেয় যে রিক্সা র প্যাডেলার। ভাংগা রিক্সা দেখায়ে বলে ভাংছেন কেন?
কিন্তু ক্ষনে ক্ষনে পূর্বের কথা মনে পড়ে। কিন্তু ঐ যে যার কাজ করতাম সেই তো জানতো না।জানি না এটা পতন ,বিরতি না অধঃপতন?না অবমাননা, অবমূল্যায়ন না যোগ্য তার হিংসা র প্রতিফলন?নাকি কোন অধিক যোগ্যতার শাস্তি না অযোগ্যতা র পরাভোগ?

উপরের ফিরিস্তি বলে দেয় পর্যায়ক্রমে বা যথাক্রমে কোনটাই হয়নি।ধারাবাহিক তো নয়ই,উল্টো ধারাবিহীন ধারনা র ধারাবিবরণী!

কেন এমন?
এক
ভাগ্য, তাহলে আর কি মুক্তি চেয়ে লাভ নেই?ভাগীরথী নদীর দিকে চেয়ে থাকি ।প্রতিমা বিসর্জনের মত নিজেও বিসর্জন হয়ে যেতে হবে।
আর যদি অর্জন হয় তাহলে কোথায় গেল গর্জন, তর্জন।সাধনার সাধ্য কি আছে বাদসাধিতে?হয়ত নেই ।অপেক্ষা র পালা।কিন্তু কতদিন?মাহেন্দ্রক্ষণ আসতে যে মহেন্দ্র রেড্ডির মহাগমনের সময় এসে যাচ্ছে।

কিন্তু কেউ কি দেখছে না ?ধরাতলের বসুন্ধরা কি শুধু ই আসমানের দিকে তাকিয়ে থাকবে ?
মাথা বা মাথার উপরে র মাথা কি শুধু ই আকাশ দিয়ে ঢাকা, না সত্যি ই রক্ষিত এক গ্যালারি র গ্যালাক্সি।
এত ভিতরে আমি অবস্থান করছি।এত সরু ও দুর্গম গুহায়। সাফল্যের সহ্য আজ চিন্তা আর জীবন কে বেমালুম গায়েব, পুরাই অনুপস্থিত।

আর কেউ তো নেই ।কাউকে বলার বা তোয়াজ করার ইচ্ছে আর হাত উঠানোর রুচি অনেক আগেই ভীতি হয়ে গেছে। ।
আমার আমি।দৃষ্টিকোণের দৃশ্যে দৃষ্টিপাত করার কেউ তো নেই ।

“”তাই আমি আমার মুক্তি চাই “:
যোগ্যতার মুল্য চাই
অবস্থান ভাল থাকশে সবাই নম নম

(লেখার অনেক অংশ অনেকের সাথে মিলবে যারা জীবন পরিক্রমায় বাস্তবতার নায়ক।আমি আসলে তাদের কথাই বলতে চেয়েছি )।

মোঃ ইমাউল হক পিপিএম
ইন্সপেক্টর
ইন্টেলিজেন্স এন্ড মিডিয়া সেল
14আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন কক্সবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD