প্রতারণা  মামলায় চাঁদপুরে চান্দ্রা চির্কা অগ্রগামী বহুমুখী সমবায় সমিতির এমডি দেলোয়ার আটক

প্রতারণা  মামলায় চাঁদপুরে চান্দ্রা চির্কা অগ্রগামী বহুমুখী সমবায় সমিতির এমডি দেলোয়ার আটক

খায়রুল  ইসলাম  বিল্লাল

গ্রাহকের জামানত প্রতারনার মাধ্যমে আত্মসাৎ করায় চির্কা অগ্রগামী সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়া পুলিশের হাতে আটক।

মামলার এজহার থেকে জানা যায় প্রতারক দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়া চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নের বাজারে অগ্রহনী ব্যাংকের নিচ তলায় ২০১৩ সালে চির্কা অগ্রগামী সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিঃ এর নাম দিয়ে মুনাফার প্রতিশ্রুতি দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে জামানত সংগ্রহ করতে থাকে। প্রতারক দেলোয়ার ফরিদগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা হয়ে কৌশলে তার বাড়ির পাশের সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নে তার এই প্রতারণার ফাদ পাতে। চান্দ্রা ও আশেপাশের এলাকা থেকে কোটি কোটি টাকা আমানত সংগ্রহ করে এবং কিছু গ্রাহকে কয়েক লক্ষ টাকা ঋণ দেয়।

ফরিদগঞ্জ নায়ার হাটে নিজের নামে জায়গা জমি ক্রয় করে, নয়ার হাট বাজারে তার বাড়ির সামনে ১০ থেকে ১২ টি দোকান ক্রয় করে , ঢাকাতে কয়েকটি ফ্লাট, গাজীপুরে বিলাস বহুল বাড়ি ক্রয় সহ নামে বেনামে বহু সম্পদের মালিক হয়ে বিলাস বহুল জীবনযাপন করতে থাকে। হঠাৎ ২০১৮ সালের শেষের দিকে প্রতারত দেলোয়ার গ্রাহকেদের আমানতের বিপরীতে লভ্যাংশ দেওয়া বন্ধ করে দেয়।পরে অফিসের স্টাফদের বেতন আটকে তাদেরকে চাকরি ছাড়তে বাধ্য করে। প্রতারক দেলোয়ার কৌশলে গ্রাহকদের সাথে দুরত্ব তৈরি করে এবং রাজনৈতিক বহু নেতার নাম ভাঙ্গিয়ে গ্রাহকদেরকে হুমকি ধামকি দেয়। গ্রাহকরা তার বাড়িতে ধফায় ধফায় তাদের আমানত চাইতে গেলে তার এলাকার পালিত কতিপয় কিছু সন্ত্রাসী গ্রাহকদের প্রাণ নাশেরও হুমকি, এবং দেলোয়ার বহু গ্রাহকদের গায়েও হাত তুলে।

দেলোয়ারের প্রতারণার শিকার হয়ে বহু সংসার
বিপন্ন। টাকার জন্য স্বামী স্ত্রী মধ্যে বিচ্ছেদ, মা ছেলের বিচ্ছেদ, ভাই বোনের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে সহায় সম্বল হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে মানুষ আজ পথে পথে ঘুরছে। তার প্রতারনার শিকার হয়ে গ্রাহকরা আজ দিশেহারা। সর্বশেষ নির উপায় হয়ে দক্ষিণ বালিয়ার নেছার কাজী বিজ্ঞ বিচারক আমলী আদালত চাঁদপুর সদরে দঃ বিঃ ৪০৬/৪২০/ ৫০৬(২)/১০৯ ধারায় মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত সন্তুষ্ট হয়ে মামলাটি চাঁদপুর সদর থানাকে এফআইআরের নির্দেশ দেন। জি আর -২৫/২১ মামলা রুজু করে সদর থানার তদন্তকারী অফিসার সুজন কান্তি বড়ুয়া আসামি কে গ্রেপ্তার করার জন্য বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেন।

১৩ সেপ্টেম্বর সোমবার রাত ৯ঃ৪৫ ঘটিকার সময় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অত্যাধুনিক কৌশল অবলম্বন করে নয়ার হাট বাজার থেকে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া ও সঙ্গীয় ফোর্স ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় প্রতারক মোঃ দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়াকে আটক করে। প্রতারক দেলোয়ার হোসেনকে আটক করার সময় নয়ার হাট বাজারে তার পালিত কিছু সন্ত্রাস বাহিনী পুলিশের উপর হামলা করে আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার অপচেষ্টা করেছে বলে জানা যায়।

এদিকে প্রতারক দেলোয়ার আটক হওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বহু গ্রাহক থানায় ও সদর সার্কেল অফিসে গিয়ে তাদের টাকা ফেরত পাওয়ার আকুতি জানান। এর মধ্যে কিছু গ্রাহক প্রতারক দেলোয়ারের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে ও জানা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD